কোড নীতি গুলোর মধ্যে একটি হল যে আমরা "নির্ভয়ে কথা বলি"। যখন আমাদের নীতিগুলি নৈতিক বা আমাদের কোডের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ কিনা সে সম্পর্কে প্রশ্ন থাকে আমরা আমাদের ম্যানেজার এবং কমপ্লায়েন্স ফাংশনকে জিজ্ঞাসা করি এবং আমরা সর্বদা এমন বাধাগুলি এবং কার্যাবলীর প্রতিবেদন করি যখন আমরা বিশ্বাস করি আমাদের আচরণবিধি বা প্রযোজ্য আইন লঙ্ঘন হতে পারে। প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমরা গ্রামীণফোনেকে আইনী ও নৈতিকভাবে কাজ করার প্রতিশ্রুতি রক্ষা করতে সহযোগীতা করি এবং আমরা কোম্পানিকে তার সুনাম বজায় রাখতে সহায়তা করি। এটি একটি দায়িত্ব যা আমরা গ্রামীণফোন কর্মচারী হিসাবে ভাগ করি।

কখনও কখনও এগিয়ে আসা এবং আপনার উদ্বেগ ভাগ করে নেওয়ার সাহস লাগে। আপনি যদি আপনার ম্যানেজার বা কোনও কমপ্লায়েন্স ফাংশানকে কোনও সমস্যা নিয়ে আলোচনা বা প্রতিবেদন করার বিষয়ে সাহসী না হন তবে আপনি ইন্টেগ্রিটি হটলাইন ব্যবহার করতে পারেন যা কিনা সমস্ত কর্মচারী এবং ব্যবসায়িক অংশীদারদের এবং শেয়ারহোল্ডারদের জন্য বিদ্যমান । একটি স্বাধীন সংস্থা দ্বারা পরিচালিত রিপোর্টিং চ্যানেলের মাধ্যমে পরিচালিত ইন্টেগ্রিটি হটলাইন এমন ব্যক্তিদের গোপনীয়তা রক্ষার জন্য তৈরি করা হয়েছে যারা কোনও উদ্বেগ রিপোর্ট করে এবং এমন ব্যক্তি যে নিজেই কোনও উদ্বেগ সম্পর্কিত প্রতিবেদনের বিষয়বস্তু। সমস্ত প্রতিবেদন গোপনীয় হিসাবে গণ্য করা হয় এবং খুব সীমিত সংখ্যক ব্যক্তিকে প্রবেশাধিকার দেওয়া হয়। চ্যানেল সর্বদা খোলা এবং বেশিরভাগ স্থানীয় ভাষায় পাওয়া যায়। আপনি আপনার নাম প্রকাশ না করেও পারেন। আপনি সম্মত না হওয়া পর্যন্ত আপনার পরিচয় গোপন রাখা হয়।

সমস্ত প্রতিবেদনকৃত উদ্বেগ গুরুত্ব সহকারে গ্রহণ করা হয় এবং ন্যায্য ও কার্যকরী অনুসরণ করা হয়। প্রতিবেদনটি প্রথমে Group Interanl Audit & Investigation (GIA&I) গ্রহণ এবং পর্যালোচনা করে। গুরুতর অভিযোগ বা উদ্বেগের ক্ষেত্রে, GIA&I প্রাসঙ্গিক তথ্যগুলি স্পষ্ট করার জন্য একটি স্বাধীন তদন্ত পরিচালনা করবে। অন্যান্য কেসগুলি ব্যবসায় ইউনিটে স্থানান্তরিত হয় এবং একটি নির্ধারিত স্বতন্ত্র ফাংশন দ্বারা পরিচালিত হয়। প্রক্রিয়াটির সততা নিশ্চিত করার স্বার্থে সমস্ত ফাংশন গুলোকে কঠোর ভাবে সমস্ত তথ্যের গোপনীয়তা বজায় রাখার প্রয়োজন হয়।

আমাদের কমপ্লায়েন্স প্রোগ্রামের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে কার্যকরী সংশোধনমূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করা এবং প্রযোজ্য ক্ষেত্রে, কর্মচারীদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া। তদন্তকৃত বিষয় সমাধান করার জন্য প্রত্যেক ক্ষেত্রে কমপ্লায়েন্স ফাংশন শাস্তিমূলক বা সংশোধনমূলক পদক্ষেপগুলির প্রয়োজন কিনা তা নির্ধারণ করতে কর্তৃপক্ষকে সহযোগীতা করে। যে কেউ আইন, আচরণবিধি বা গ্রামীণফোনের নীতি বা সনদ লঙ্ঘন করে তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের আইন অনুযায়ী শাস্তিমূলক পদক্ষেপ গৃহিত হতে পারে এমনকি চাকরির অবসান হতে পারে। এই ধরনের লঙ্ঘন গ্রামীণফোনের সুনামকে ক্ষতিগ্রস্ত করে এবং বাণিজ্যিক ক্ষতির সম্মুখীন করে এবং আইন লঙ্ঘনের ফলে গ্রামীণফোনকে এবং সেই সাথে ব্যক্তিগত লঙ্ঘনকারীকেও জরিমানা, শাস্তি, ক্ষতি ও কিছু ক্ষেত্রে কারাদণ্ড পর্যন্ত করা হতে পারে।

এটি মনে রাখা জরুরী যে আমরা সবধরনের প্রতিশোধমূলক ব্যবস্থার ভয় ছাড়াই সন্দেহজনক অনৈতিক বা অবৈধ আচরণ প্রতিবেদন করতে পারি। সরল বিশ্বাসে নির্ভয়ে কথা বলে এরূপ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের প্রতিশোধ গ্রহণ গ্রামীণফোন সহ্য করে না।